3.6 C
New York
Sunday, December 5, 2021
spot_img

ভৈরবে পূর্ব শত্রুতার জেরে সংঘর্ষের ঘটনায় একজন নিহত, বাড়ি-ঘর ভাংচুর, কোটি টাকার ক্ষতি ***

মো. জামাল আহমেদ, ভৈরব প্রতিনিধি, ২২ জুলাই ২০২০ইং

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দফায় দফায় রক্তয়ী সংঘর্ষে তাজুল মিয়া (৫০) নামে ১ জন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। এ ঘটনায় তাজুল সমর্থকরা প্রতিপ বড় বাড়িতে হামলা চালিয়ে ২৫/৩০ টি বসতবাড়ি ভাঙচুর, লুটপাট ও নারীদের নির্যাতন ও শ্লীলতাহানীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে কোটি টাকার য়তির দাবি করছেন তিগ্রস্থরা। এসব ঘটনায় উভয় পক্ষ ভৈরব থানায় ৫টি মামলা দায়ের করেছে। এলাকায় বর্তমানে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে ।
মামলার এজাহার, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসিরা জানায়, গত ২৫ ফেব্রুয়ারী মানিকদী চান্দেরচর বড়বাড়ির কেবলু মিয়ার মেয়ে দুপুরে গোসখানায় গোসলরত অবস্থায় একই এলাকার কামাল মিয়ার পুত্র তৌফিক গোসলখানায় ঢুকে কেবলু মিয়ার মেয়েকে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে।
এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পরদিন ইউপি সদস্য নাসির ঊদ্দিন রাজা মিয়া, ছিদ্দিক মিয়া, মানিকদী গ্রামের লাল মিয়া ইসমাইল মিয়ার নেতৃত্বে বড়বাড়িতে হামলা চালিয়ে বসতবাড়ি ভাঙচুর, লুটপাট মারধর করে বেশ কয়েকজনকে আহত করে। এ ঘটনায় ভৈরব থানায় ধর্ষণ চেষ্টা ও বাড়ি-ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় আলী মিয়া ও রেখা বেগম বাদী হয়ে পৃথক ২টি মামলা দায়ের করেছে।
এ ঘটনার জের ধরে গত ৩ মে উভয় পক্ষের মধ্যে ফের সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ২০ জন আহত হয় । এদের মধ্যে গর্জি বাড়ির তাজু মিয়া (৫০) গুরুতর আহত হলে প্রথমে তাকে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায় ।

তাজু মিয়ার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে এলাকার ৪টি বংশের লোকজন ফের চান্দেরচর বড়-বাড়িতে হামলা চালিয়ে ২৫/৩০টি বাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাট করে। এর মধ্যে ২টি পাকাভবন ভেঙে ফেলে টাকা-পয়সা ও আসবাব পত্র লুটপাট করে। এতে কোটি টাকার য়তির দাবি করেছেন ভুক্তভোগী তিগ্রস্ত পরিবারগুলো।

এদিকে নিহত তাজু মিয়ার পরিবার অভিযোগ অস্বীকার করে তাজু হত্যার বিচার দাবি করেছেন।

এ বিষয়ে গজারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম সারোয়ার জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গর্জিবাড়ি ও বড়বাড়ি ২ পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে তাজু মিয়া নামে ১ জন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। এছাড়া বেশ কিছু বাড়ি-ঘর ভাঙচুরের ঘটনা ঘেটেছে ।

এ বিষয়ে ভৈরব থানার ওসি মোঃ শাহিন জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চান্দেরচর গ্রামে ২ পক্ষের সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে এদের মধ্যে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১ জন মারা গেছে। এছাড়া বাড়ি-ঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনায় উভয় পক্ষ একাধিক মামলা দায়ের করেছে। নতুন করে যাতে এলাকায় সংঘর্ষ না ঘটে আমরা সেদিকে নজরদারি করছি। বর্তমানে পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে।

<iframe width=”560″ height=”315″ src=”https://www.youtube.com/embed/QC5F_Vs0Wzc” frameborder=”0″ allow=”accelerometer; autoplay; encrypted-media; gyroscope; picture-in-picture” allowfullscreen></iframe>

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আরও পড়ুন