6 C
New York
Sunday, April 21, 2024
spot_img

বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকার অজুহাতে ইমনকে কলম ও চাবি দিয়ে জখম করেছে শিক্ষক জসিম উদ্দিন, থানায় অভিযোগ ***

ঢাকার ধামরাই উপজেলায় বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকার অজুহাতে ইমন হোসেন (১৬) নামের এক স্কুলছাত্রকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। ইমন উপজেলার কুশুরা ইউনিয়নের কুশুরা আব্বাস আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির বাণিজ্য বিভাগের ছাত্র।

এ ঘটনায় ইমন এর বাবা লাল মিয়া ওই স্কুলের গণিত শিক্ষক জসিম উদ্দিনকে অভিযুক্ত করে ধামরাই থানায় অভিযোগ করেছেন।

ইমনের বাবা বলেন, আমার শ্বাশুড়ী অসুস্থ থাকায় আমার পরিবার তাকে দেখতে যায়, সে জন্য আমার ছেলে তিন দিন বিদ্যালয়ে যেতে পারেনি। তিন দিন পর গত ১৫ নভেম্বর বিদ্যালয়ে গেলে ১ম কাসেই আমার ছেলে ইমনকে সকল শিার্থীর সামনে অকথ্য ভাষায় গলিগালাজ করে এবং এক পর্যায়ে মাথা নিচু করে পিঠের কয়েক জায়গায় কলম দিয়ে এবং মাথায় চাবি দিয়ে আঘাত করে। হাতের আঙ্গুলে চাবি দিয়ে চাপও দেয়। আমি এই পাষন্ড শিকের বিচার চাই।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ইমন বলেন, আমার আম্মু তিন দিন বাসায় না থাকার কারণে বাড়ির কাজ গুলো আমার করতে হয়, সেজন্য আমি স্কুলে যাইতে পারি নাই। তিন দিন পর স্কুলে গেলে ১ম কাসে গণিত শিক্ষক জসিম স্যার আমায় মারধর করে।

এ ব্যাপারে গনিত শিক্ষক জসিম উদ্দিন বলেন, ইমন পরিক্ষায় ফেল করেছে, ফেল করা শিক্ষার্থীর জন্য ১০ তারিখ থেকে ম্যানেজিং কমিটি অতিরিক্ত ক্লাসের ব্যবস্থা করেছে। ইমনসহ আরো কিছু শিক্ষার্থী বেশ কিছু দিন ক্লাসে অনুপস্থিত থাকে। অনুপস্থিত থাকার কারণে কিছু শিক্ষার্থীকে ক্লাস থেকে বের করে দেয়া হয়। তিন দিন পর ইমন ক্লাসে আসলে ইমনকে আমি বলি তিন দিন যে ক্লাসে আসলি না বাড়িতে পড়া পড়েছো নাকি? ইমন না করায় আমি রাগের বশে এ কাজ টা করে ফেলি। আসলে কাজটা করা আমার উচিত হয়নি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিনুর রহমান মারধরের বিষয়টির সত্যতা শিকার করে বলেন, আমরা স্কুল গভর্ণিং বডি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবো।

এ বিষয়ে ধামরাই থানার এস.আই নজরুল বলেন, এ ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাইফুল ইসলাম, নবীনগর তিতাস টিভি। Thanks for watching

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আরও পড়ুন